মোহাম্মাদ কাসীম বলেন, আমি এই স্বপ্নটি ৩০ নভেম্বর ২০১৫ তে দেখেছি। আমি কোথাও দৌড়াচ্ছিলাম এবং নিজেকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম। আমি কোথায় যাচ্ছি? মোহাম্মাদ (ﷺ) যে আলোতে চলতেন সেই জায়গা আল্লাহ তাঁর রহমত দ্বারা পূর্ণ করতেন এবং তারপরে আমি মোহাম্মাদ (ﷺ) এর উম্মত হওয়া সত্ত্বেও পথ খুঁজে পাচ্ছি না। আমি আল্লাহর কাছে দু’আ করলাম, মোহাম্মাদ (ﷺ) এর পথে চলার। যাতে আমি সফল হতে পারি। তারপরে আমি একটি বিল্ডিং দেখলাম, আমি ভিতরে গেলাম সেখানে একটি মেয়ে রান্নাঘরে খাবার তৈরি করছিল আমি মেয়েটিকে খাবারের জন্য জিজ্ঞাসা করি, কিন্তু সে আমার কথায় কান দেয় না, আমি তাকে বহুবার ডেকেছিলাম কিন্তু সে আমার কথাও শোনেনি এবং সে আমার চেহারাও দেখেনি, সে রান্নাঘরের দরজা বন্ধ করে দিল, তারপরে আমি দেখলাম সিঁড়ি উপরে উঠছে এবং আমি তা দিয়ে উপরে উঠতে শুরু করি। আমি যখন কিছু সিঁড়ি উপরে উঠলাম দেখলাম সেখানে একটি বিশাল হল ছিল, সেখানে মুসলমান এবং তাদের নেতারা ছিল, যখন আমি তাদের কাছে যাই তখন আল্লাহ আমার ডান কানে বলেছিলেন যে “আমি তোমাকে যে স্বপ্ন দেখিয়েছি, কাসীম তা তুমি বর্ণনা কর।” সুতরাং আমি থামলাম এবং তাদের বললাম যে- আল্লাহ ﷻ এবং মোহাম্মাদ (ﷺ) – বেশ কয়েক বছর ধরে আমার স্বপ্নের মধ্যে আসছেন এবং আল্লাহ আমাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে তিনি আমাকে সাহায্য করবেন এবং তিনি আমাকে এই অন্ধকার থেকে বের করবেন এবং আল্লাহ আমাকে সরল পথ দেখিয়েছেন স্বপ্নের মাধ্যমে। এ কথা শুনে তারা হাসতে শুরু করল এবং বলল যে “তুমি কি পাগল?, আল্লাহকে কে দেখেছে- স্বপ্নে?” তবে খুব কম লোকই আমাকে বিশ্বাস করেছিল এবং আমি বলেছিলাম- কেন নয়? আল্লাহ সব কিছু করতে সক্ষম এবং মোহাম্মাদ (ﷺ) আমাকে স্বপ্নে বলেছিলেন যে কাসীম, যে তোমাকে সমর্থন করল, সে যেন আমাকেই  সমর্থন করল। তবে তারা আবারও আমার সাথে কৌতুক করল, আমি বলেছিলাম যে “আপনারা কেবল আমাকে আল্লাহ তায়ালার এবং মোহাম্মাদ (ﷺ) আমার স্বপ্নে আসতে থাকায় আমাকে উপহাস করছেন”। তাই  তাদের নেতা বলল যে “হ্যাঁ এই কারণেই এবং আপনি মিথ্যা বলছেন।” আমি চুপচাপ নিজেকে বলেছিলাম যে- “এই উম্মাহ আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করে তাদের সাহায্য করার জন্য এবং তাদেরকে অন্ধকার থেকে বের করে আনার জন্য কিন্তু যখন আল্লাহ কাউকে পাঠান তখন তারা তাঁকে উপহাস করে।” আমি সেখান থেকে চলতে শুরু করলাম এবং যারা বিশ্বাসী তারাও আমার সাথে চলতে শুরু করেছিল, তাই বাকী লোকেরা তাদের আমার সাথে চলতে বারণ করল এবং বলল এটি একটি পাপ, তবে তারা তাদের কথায় কান দেয়নি এবং এই লোকেরা আমার পিছনে এসেছিল। আমি আমার সঙ্গীদের বললাম যে, এই লোকেরা যদি বিশ্বাস না করে তবে আল্লাহ তাদেরকে গভীরভাবে নাড়া দেবে। এবং ঠিক সেই সাথে একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প এসেছিল এবং প্রত্যেকে ভয় পেয়ে গিয়েছিল আমি অনুভব করেছি যেন এই বিল্ডিংটি ধসে পড়বে। এবং আমি বলেছিলাম যে যদি এই বিল্ডিংটি ধসে পড়ে যায় তবে এর ছাদটি ছিঁড়ে যাবে এবং আল্লাহ আমাকে এবং আমার সাথিদের ঠিক বের করে আনবেন। কিন্তু ভূমিকম্প বন্ধ হয়ে যায় এবং যারা তাদের নেতাদের সাথে ছিলেন তাদের অধিকাংশই পালিয়ে যায় এবং তারা ভয় পেয়ে যায়। তবে নেতারা এবং তাদের কয়েকজন সঙ্গীসাথীরা আবার আমাকে উপহাস করতে শুরু করলেন এবং আমি তাদের বললাম যে, আল্লাহ এমন ভয়াবহ ভূমিকম্প প্রেরণ করেছেন এবং তবুও আপনারা বুঝতে পারছেন না এবং আপনারা কখনই বুঝতে পারবেন না। অতঃপর আল্লাহ অত্যন্ত ক্রোধে তাঁর সিংহাসনে উপস্থিত হলেন এবং আল্লাহ বললেন, “তোমরা কেবল কাসীমকে উপহাস করতে থাকো, তোমাদের হাত ভেঙে যাবে এবং তোমরা ধ্বংস হয়ে যাবে!” আল্লাহর রাগান্বিত কণ্ঠ শুনে আমি জেগে উঠলাম, ভয়ে কাঁপছিলাম।