মোহাম্মাদ কাসীম বলেন, ২০১৫ সালের ৭ জুনের স্বপ্নে আমি দেখি, আমার বাড়িতে নির্মাণ কাজ চলছিল। মোহাম্মাদ (সঃ) এবং আমি, আমার বাড়ির সম্মুখে দাঁড়িয়ে ছিলাম। তিনি আমাকে বললেন, “কাসীম, যখন তোমার বাড়ি সম্পূর্ণ হবে, আমি তোমাকে ডাকব মদীনাতে আসতে। আমি তোমার সাথে সেখানে সাক্ষাৎ করব। তখন আমি তোমাকে আদেশ করব মক্কায় যেতে এবং আল্লাহ্‌র কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে। এবং তারপর তোমাকে মুসলমান উম্মতদেরকে সাহায্য করতে হবে।” আমি বললাম, “হ্যাঁ, আপনি আমাকে যা কিছুই করতে বলবেন, আমি তা ই করব।” তারপর আমি নিজেকে একটি বিশাল মসজিদে দেখি, সাথে ছিল খুব ক্ষুদ্র পরিমাণ আলো। এরই মধ্যে মসজিদের ইমাম নামাজ শুরু করেছেন এবং আমি তাদের সাথে যোগদান করি। যখন আমরা নামাজ শেষ করলাম, অল্প কিছু লোক আমার দিকে তাকিয়ে ছিল। এবং আমাকে বলল, “আমরা পরিষ্কারভাবে দেখতে পাচ্ছি, একটি আলো আপনার কাছ থেকে আসছে।” আমি উত্তরে বললাম, “সুতরাং, কী ?” তারা আমাকে বলল যে, “আপনি কি দেখতে পারেন যে, আমরা অন্ধকারের মধ্যে বসবাস করছি ? এবং সেই অন্ধকার প্রতিদিনই অবিরতভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অনুগ্রহ করে আমাদেরকে সাহায্য করুন। আপনার একটি আলো আছে, আমাদেরকে আলোতে নিয়ে আসুন। তবেই আমরা এই অন্ধকার থেকে বেরিয়ে আসতে পারব।” আমি তাদেরকে উত্তর দিলাম যে, “আমার কাছে শুধুমাত্র আল্লাহ্‌র একটি নূর আছে এবং আমি এটার সাহায্যে সমগ্র বিশ্বকে পূর্ণ করতে পারব।” তারা আমাকে অনুরোধ করেছিল, এটা তাদের জন্য করতে। তারপর আমি আল্লাহ্‌র নূরকে অন্ধকারময় আকাশে নিক্ষেপ করি। আকাশ নূরে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে এবং সমগ্র বিশ্ব নূরে জ্বলজ্বলে ছিল। এবং মুসলমানদের মুখমণ্ডল নক্ষত্রের মত জ্বলজ্বলে হয়ে ওঠে এবং প্রত্যেকেই আনন্দিত ছিল। স্বপ্ন এখানেই শেষ হয়।